সুইজারল্যান্ড পার্লামেন্ট নির্বাচনে প্রথম বাংলাদেশী মুসলিম এমপি প্রার্থী লাকসামের আনোয়ার হোসেন।

ফারুক আল শারাহ:
বাংলাদেশি নাগরিক দামারিস আনোয়ার হোসেন সুইজারল্যান্ডের আসন্ন পার্লামেন্ট নির্বাচনে প্রথম মুসলিম প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তিনি কুমিল্লার লাকসামের কৃতি সন্তান। আগামী ২৫ অক্টোবর ২০২০ অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে তিনি ব্যাসেল সিটি থেকে সিভিপি পার্টির মনোনীত প্রার্থী।
আনোয়ার হোসেন সুইজারল্যান্ডের স্থায়ী বাসিন্দা। এমবিএ ডিগ্রীধারী প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। তিনি সেখানে বিয়ে করেন। তার শ্বশুর-শ্বাশুড়ি সুইজারল্যান্ডের রাজনৈতিক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। তারা সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন দীর্ঘদিন। রাজনৈতিক পরিবারের জামাই হিসেবে আনোয়ার হোসেন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। দাম্পত্য জীবনে তিনি দুই কন্যা সন্তানের জনক।
আনোয়ার হোসেনের বাড়ি কুমিল্লার লাকসাম পৌরশহরের ফতেহপুর। তিনি গুম হওয়া লাকসাম পৌরসভা বিএনপি’র সভাপতি হুমায়ুন কবির পারভেজের ছোট ভাই। চার ভাইয়ের মধ্যে বড় ভাই গোলাম ফারুক লাকসাম বিএনপি’র অন্যতম নেতা, ছোট ভাই ইকবাল হোসেন আমেরিকায় প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী।
পৃথিবীর অন্যতম শান্তিপ্রিয় ও সমৃদ্ধশালী রাষ্ট্র সুইজারল্যান্ড। ইউরোপের হার্ট হিসেবে খ্যাত এই দেশটিতে প্রতি ৪ বছর পরপর পার্লামেন্ট নির্বাচনের মাধ্যমে ১১০জন সংসদ সদস্যের মেজোরোটিতে সরকার গঠিত হয়। ৪টি রাজনৈতিক দল ঐক্যমতের ভিত্তিতে পর্যায়ক্রমে সরকার পরিচালনার দায়িত্ব পালন করে।
উল্লেখ্য, সুইজারল্যান্ড প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, চকলেট এবং ঘড়ির জন্য পৃথিবীখ্যাত। আবার সুইস ব্যাংকের জন্যও পরিচিত সারা বিশ্বে। সুইজারল্যান্ডের রাজধানী বার্ন। আয়তনের বিচারে বিশ্বের ১৩২তম দেশ। শাসন ব্যবস্থা যুক্তরাষ্ট্রীয় আধা-গণতান্ত্রিক। দেশের শাসক সাত সদস্যের যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিষদ। সুইস সরকারের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো প্রতিবছর ১ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতি পরিবর্তন হয়। চার দলের ঐক্যমতের ভিত্তিতে গঠিত মন্ত্রীপরিষদের ১ জন সদস্য এক বছরের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন।

আরো পড়ুন
error: Content is protected !!