মনোহরগঞ্জ উপজেলা প্রতিষ্ঠার ১৫ বছরেও চালু হয়নি ডাক বিভাগের পূর্ণাঙ্গ সেবা।

ফারুক আল শারাহ:
২০০৫ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি যাত্রা শুরু করে কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলা। প্রতিষ্ঠার ১৫ বছরেও এ উপজেলায় পূর্ণাঙ্গ সেবা চালু হয়নি ডাক বিভাগের। জনবল সঙ্কট ও নিজস্ব পোস্টাল কোড না থাকায় ডাক বিভাগের কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে জোড়াতালি দিয়ে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, উপজেলায় থাকা ১৬টি পোস্ট অফিসের মধ্যে মনোহরগঞ্জ বাজার, নরহরিপুর বাজার, হাসনাবাদ বাজার, বাইশগাঁও বাজার, দাদঘর বাজার, নোয়াগাঁও, পোমগাঁও বাজার, কাশিপুর বাজার ও আমতলী বাজার (৯টি) পোস্ট অফিস গত ১৫ বছরের বেশি সময় ধরে চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তির চিতোষী সাব-পোস্ট অফিসের অধীনে রয়েছে। যার পোষ্ট কোড নং-৩৬২৩। অন্যদিকে, লাল চাঁদপুর, ইকবালনগর, লক্ষণপুর বাজার, নাথেরপেটুয়া বাজার, বিপুলাসার বাজার ও ভোগই (৭টি) পোস্ট অফিস লাকসাম উপজেলার অধীনে রয়েছে। যার পোস্ট কোড নং- ৩৫৭০।
উপজেলার ১৬টি পোস্ট অফিসের অধিকাংশটিতে জনবল সংকট, অতিরিক্ত পরিবহন ব্যয়, অফিসে মূল্যবান কাগজপত্র রাখার সরঞ্জাম না থাকায় এখানে ডাক বিভাগের সেবা দিনদিন ঝিমিয়ে পড়ছে। বিলিকারক, পোস্টম্যান, রানার, পেকারসহ অন্যান্য পদে কর্মচারি না থাকায় ব্যহত হচ্ছে পোস্টাল কার্যক্রম। দ্রুত উপজেলায় ডাক বিভাগের পূর্ণাঙ্গ সেবার দাবি জানান স্থানীয়রা।
মনোহরগঞ্জ পোস্ট অফিসের পোস্টাল বিলিকারক মোবারক হোসেন জানান, এখনো চালু হয়নি উপজেলা পোস্ট অফিসের কার্যক্রম। নিজস্ব পোস্ট কোড না সেবা গ্রহীতাদের শিকার হতে হচ্ছে হয়রানির। নানা সমস্যায় উপজেলায় জোড়াতালি দিয়ে চলছে ডাক বিভাগের কার্যক্রম।
কুমিল্লা জেলা ডেপুটি পোস্ট মাষ্টার জেনারেল মো. মনজুরুল আলম বলেন, মনোহরগঞ্জ উপজেলা পোস্ট অফিস প্রশাসনিক অনুমোদন পেয়েছে। কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি প্রয়োজনীয় জনবল নিয়োগের জন্য। নিজস্ব পোস্টাল কোড সহ পূর্ণাঙ্গ সেবা চালুর চেষ্টা অব্যাহত আছে বলে তিনি জানান।

You might also like
error: Content is protected !!