মধুমাসে চৌদ্দগ্রামে ফলের বাজার লিচুর দখলে।

মেহরাব অপি:

চলছে মধুমাস জ্যৈষ্ঠ, রসালো ফলে ভরে উঠেছে চৌদ্দগ্রামের ফল দোকান গুলো। তবে অন্যান্য ফলের চেয়ে লিচুর পসরা সাজিয়ে বসেছেন ফল ব্যবসায়ীরা।

বুধবার  (২৬মে) চৌদ্দগ্রাম বাজার ঘুরে ও ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, রাজশাহী, দিনাজপুর ও ঈশ্বরদির লিচু পাওয়া যাচ্ছে  বাজারে। আগামী দু-একদিনের মধ্যে বাজারে আসবে ব্রাহ্মনবাড়িয়া আখাউড়ার লিচু। এবার প্রচন্ড খরতাপে লিচুর ফলন কিছুটা কম হয়েছে এবং সাইজে ও আগের থেকে তুলনামূলক ছোট। দাম বৃত্তবানদের হাতের নাগালে থাকলেও, সাধারণ নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য একটু বেশি।

বাজারে প্রতি’শ লিচু বিক্রি হচ্ছে ৩শ থেকে ৩শ পঞ্চাশ টাকায়। ভ্রাম্যমান বিক্রেতারা লিচু ফলের ঝুড়ি সাজিয়ে বসেছেন বাজারের মোড়ে মোড়ে।

চৌদ্দগ্রাম বাজারের ফল ব্যবসায়ী কবির আহম্মেদ বলেন, অনাবৃষ্টি ও দাবদাহের কারণে লিচুর উৎপাদন এবার কম। আমি রাজশাহী মেহেরপুরের লিচু বিক্রি করছি।

চৌদ্দগ্রামের আরেক ফল ব্যবসায়ী শাহদাৎ বলেন, দিনাজপুর ঈশ্বরদীর লিচু বিক্রি করছি। রাজশাহীর লিচুটার দাম একটু বেশি, ক্রেতারা দাম কম পেলে খুশি হয়। আখাউড়া বাগানে আমরা লিচু কিনেছি, দু-একদিনের মধ্যেই আমরা সেই লিচু বিক্রি করতে পারব।

কথা হয় লিচু ক্রেতা মোঃ সাকিব আহমেদ’র সাথে, তিনি বলেন ৩০০ টাকায় ১শ লিচু কিনেছি, দাম মোটামুটি স্বাভাবিক আছে।

লিচু কিনতে আসা আরেকজন মহিলার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আমি ৩৫০ টাকায় ১শ লিচু কিনতে পেরেছি,কারন তা আমার সাধ্যের মধ্যে। কিন্তু নিম্ন মধ্যবিত্ত খেটে খাওয়া মানুষেরা কি করে কিনবে ! তাই দাম কিছুটা কম হলে ভালো হতো।

You might also like
error: Content is protected !!