ব্রাহ্মণপাড়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে এক প্রবাসীর স্ত্রীর আত্মহত্যা।

রেজাউল হক শাকিলঃ

কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার শশীদল গ্রামে বসত ঘরের তীরের সাথে ওড়না পেচিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে স্বর্ণলী আক্তার (২২) নামের এক প্রবাসীর স্ত্রী আত্মহত্যা করেছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে এঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে স্বর্ণালীর মরদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার শশীদল দক্ষিণপাড়া গ্রামের খন্দকার বাড়ির মৃত ইসমাইল হোসেন খন্দকারের ছেলে সৌদি প্রবাসী রাসেল খন্দকারের স্ত্রী ও ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী উপজেলার সিরাজ মিয়ার মেয়ে স্বর্ণালী আক্তার (২২) বৃহস্পতিবার দুপুর আনুমানিক সাড়ে ১২ টার সময় তার নিজ বসত ঘরের তীরের সাথে ওড়না পেচিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

এব্যাপারে নিহত গৃহবধু স্বর্ণালী আক্তারের জা ও মামাতো বোন রেবেকা আক্তার জানান, স্বর্ণালী আক্তার সম্পর্কে আমার ফোফাতো বোন এবং তার স্বামী আমার ফুফাতো ভাই। গত পঁাচ বছর পূর্বে আমার দেবর (ফুফাতো) ভাই রাসেলের সাথে বিয়ে হয়। রাসেল ও স্বর্ণালী সম্পর্কে খালাতো ভাই বোন। বিয়ের পর থেকেই রাসেল প্রবাসে আছে এবং মাঝে একবার ছুটিতে দেশে এসেছিলো। স্বর্ণালী পূর্বে থেকেই বিভিন্ন রোগে শারীরিক ভাবে অসুস্থ্য ছিল। ঘটনার দুইদিন পূর্ব হতে স্বর্ণালীর শ্বসকষ্ট বেড়ে প্রচন্ড অসুস্থ্য হয়ে যায়। সে রোগের তারনায় শ্বাসকষ্ট সইতে না পেরে সকলের অজান্তে তার নিজ কক্ষে তীরের সাথে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

 তদন্তকারী কর্মকর্তা ব্রাহ্মণপাড়া থানার এসআই সফিকুল ইসলাম জানান, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে নিহতের মরদেহ ফাঁসিতে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পাই। স্থানীয় লোজনের সহযোগিতায় মরদেহ নামিয়ে শোরতহাল প্রতিবেদন তৈরী শেষে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছি। তিনি আরো বলেন, স্বর্ণালী আক্তার শারীরিক ভাবে অসুস্থ্যতার কারণে আত্মহত্যা করেছে বলে আমরা প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছি। এব্যাপারে থানায় অপমৃত্যুর মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আরো পড়ুন
error: Content is protected !!