চৌদ্দগ্রামে তিন চাকার বাহন চলাচল বন্ধে কঠোর অবস্থানে  হাইওয়ে পুলিশ।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে তিন চাকার বাহন চলাচল বন্ধে কঠোর হচ্ছে হাইওয়ে পুলিশ। সড়ক পরিবহন আইনে অপরাধ, শাস্তির পরিমাণ এবং ব্যক্তিগত ক্ষতি সম্পর্কে অবগত করে গত এক সপ্তাহ ধরে মহাসড়কে কুমিল্লার সুয়াগাজী থেকে চৌদ্দগ্রামের শেষ  সীমান্ত পর্যন্ত ৪৮ কি.মি এলাকায় মাইকিং, লিফলেট বিতরণ এবং জনপ্রতিনিধিদের সাথে বৈঠক করে আসছে হাইওয়ে পুলিশ। গত তিন অভিযান চালিয়ে ৩৬ টি থ্রী হুইলার বা তিন চাকার বাহন আটক করেছে।
মিয়া বাজার হাইওয়ে পুলিশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান বুধবার (১৮ আগস্ট)  এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের ৪৮ কি.মি. অংশে লকডাউনের পর থেকে তুলনামুলক হারে তিন চাকার ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, নসিমন/ভটভটি ইত্যাদি বেড়ে গেছে। যার ফলে সড়কে দুর্ঘটনার পরিমান আশঙ্কাজক হারে বেড়েই চলছে। তাই গত এক সপ্তাহ ধরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে বৈঠক, সড়কের বিভিন্ন অংশে চালকদের মধ্যে লিফলেট বিতরণ ও মাইকিং করে জনসচেতনতা সৃষ্টি করা হয়েছে।
এরই অংশ হিসেব বুধবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কুমিল্লার সুয়াগাজী,চৌদ্দগ্রামের মিয়াবাজার, আমানগন্ডা, কালিরবাজর, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা সদর, বাতিসা, নানকরা, আমজাদের বাজার, চিওড়া, জগন্নাথ দির্ঘী ও পদুয়া রাস্তার মাথা এলাকায় মাইকিং করা হয়েছে। বুধবার সকাল থেকে কেউ মহাসড়কে তিন চাকার পরিবহন নিয়ে বের হলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে। এ ক্ষেত্রে রাজনৈতিক ও সামাজিক প্রভাব খাটিয়ে কেই যেন থানায় এসে চালকদের পক্ষে তদবীর না করেন। সে বিষয়ে ওসি মো. আসাদুজ্জামান সকলের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।
হাইওয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে গত তিন দিনে ৩৬ টি থ্রি হুইলার আটক করে তাদের বিরুদ্ধে সড়ক আইনে মামলা করেছে।এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

You might also like
error: Content is protected !!