কুমিল্লা নগরীর ৩, ১০, ১২ ও ১৩ নং ওয়ার্ড লকডাউনের সিদ্ধান্ত।

দেলোয়ার হোসেন জাকির।।

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন এলাকার ৪টি ওয়ার্ডকে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কুমিল্লায় মঙ্গলবার পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ছাড়িয়েছে। প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। 

করোনা সংক্রামন ঠেকাতে নগরীর ৩, ১০, ১২ ও ১৩ নম্বর ওয়ার্ডকে লকডাউনের সিদ্ধান্ত হয়। মঙ্গলবার সকালে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে জেলা করোনা সংক্রামন প্রতিরোধ কমিটি জরুরী বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ ৪টি ওয়ার্ডে আক্রান্তের সংখ্যা ১৬৩ জন। 

১৯ জুন রাত ১২টা থেকে শুরু হয়ে লকডাউন থাকবে ৩ জুলাই পর্যন্ত। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার। জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের পরিচালক ডা.মুজিবুর রহমান, পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম, সিভিল সার্জন ডা.নিয়াতুজ্জামান, কুমিল্লা সেনানীবাসের ৩৩ বীর এর অধিনায়ক লে কর্নেল মাহাবুব আলম, বিএমএর সাধারন সম্পাদক ডা. আতাউর রহমান জসিম, ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলন সরকার মাহম্মুদ জাবেদ, ১০ নং কাউন্সিলর মঞ্জুর কাদের মনি, কাউন্সিলর কাউসারা বেগম সুমি। বৈঠক শেষে সিদ্ধান্ত সাংবাদিকদের জানান,সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার।     

৪টি ওয়ার্ডে যে এলাকা সড়ক লকডাউনের আওতায় বন্ধ থাকবে ৩নং ওয়ার্ড কালিয়াজুরি মৌজার রেইসকোর্স, পুলিশ লাইন, শাসনগাছা মৌজার (অংশ) ছোটরা মৌজার ধানমন্ডি রোড শাসনগাছা ডাক বাংলো, ১০নং ওয়ার্ড, ঝাউতলা (ছোটরা ও কান্দিরপাড় মৌজার অংশ) বাগিচাগাঁও (কান্দিরপাড় মৌজার অংশ)’র উত্তরে- ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্যাংক রোড, ১২নং ওয়ার্ড উত্তর চর্থা মৌজা ও বজ্রপুর মৌজার অংশের উত্তরে- ঢাকা চট্টগ্রাম ট্যাংক রোড, দক্ষিণে-সার্কুলার রোড ও ১৩নং ওয়ার্ড দক্ষিণ চর্থা’র উত্তরে- সার্কুলার রোড (কামাল উদ্দিন চৌধুরী ও হোচ্ছাম হায়দার চৌধুরী সড়ক, দক্ষিণে ড.আখতার হামিদ খান রোড/ ইপিজেড রোড, পূর্বে- মুরাদপুর জিনার পুকুরপাড় হয়ে নওয়াব বাড়ী চৌমুহনী, পশ্চিমে- কুমিল্লা লাকসাম রোড এলাকাগুলোতে লকডাউন কার্যকর হবে।

আরো পড়ুন
error: Content is protected !!