কুমিল্লায় প্রশাসনের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ;মোবাইল ট্রাফিক স্কুল।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

কুমিল্লা নগরীতে ফুটপাত দখল মুক্তের পর যানবাহন ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তনের জন্য মাঠে নেমেছে জেলা প্রশাসন। এজন্য রোববার (২৪ জানুয়ারি) দিনভর নগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। মোটরসাইকেল চালক ও আরোহীদের হেলমেট ব্যবহার শতভাগ নিশ্চিত করতে ভ্রাম্যমাণ আদালতও পরিচালনা করা হয়েছে।

এ ক্ষেত্রে ব্যতিক্রমী এক উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা। অভিযানকালে যাদের হেলমেট ছিলো না তাদের নতুন হেলমেট কিনতে বাধ্য করা হয়েছে। অনেকে আবার বাসায় গিয়ে হেলমেট নিয়ে এসে হাজির হয়েছেন। তবে যারা কোনটাই পারেননি তাদের ঠাঁই হয়েছে নগরীর কান্দিরপাড় এলাকার টাউনহল মাঠের ‘মোবাইল ট্রাফিক স্কুলে’। ওই স্কুলে মোটরসাইকেল চালকদের প্রশিক্ষণ এবং সতর্কবার্তা দিয়েছেন জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.আবু সাঈদ। এছাড়া দিনভর অভিযান পরিচালনা করেছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট এসএম মোস্তাফিজুর রহমান, অমিত দত্ত, বিআরটিএ’র সহকারী মোটরযান পরিদর্শক মো. মিনহাজ উদ্দিন প্রমুখ।

রোববার রাতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.আবু সাঈদ জানান, দিনভর অভিযানে ২’শ জন মোটরসাইকেল চালককে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৬০ জনের অনেকের সঙ্গে হেলমেট ছিলো। আবার অনেকে বাসা থেকে এবং দোকান থেকে নতুন হেলমেট কিনে নিয়ে এসেছেন। কিন্তু যারা কোনটাই পারেননি তাদের সচেতন করার জন্য নিয়ে আসা হয় মোবাইল ট্রাফিক স্কুলে। এছাড়া আরও ৮ জনকে চার হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, কুমিল্লা নগরীতে সব ধরনের যানবাহন ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তনের জন্য বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে মোটরসাইকেল চালকদের বেপরোয়া ড্রাইভিং, লাইসেন্স না থাকা ও হেলমেটবিহীন মোটরসাইকেল চালানোর বিরুদ্ধে এখন থেকে নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চলবে। এজন্য অবশ্যই চালক ও আরোহীকে হেলমেট পরিধান করতে হবে। এছাড়া চালকসহ দুই জনের বেশি আরোহী থাকলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

You might also like
error: Content is protected !!