কুমিল্লায় করোনায় নতুন শনাক্ত ৫৪:মৃত্যু ২।

দেলোয়ার হোসাইন আকাইদঃ

লকডাউনের ১০ দিনে কুমিল্লায় কমেনি মৃত্যও হার। বেড়েছে সুস্থতা ও মৃত্যর সংখ্যা, কমেছে আক্রান্তের সংখ্যা। ১৪ এপ্রিল কঠোর লকডানের দিন থেকে ২৩ এপ্রিল পর্যান্ত রিপোর্টে থেকে এ তথ্য জানা যায়। গেল ২৪ ঘন্টায় নতুন শনাক্ত ৫৪ মৃত্যু ২ জন।

জেলা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, ১৪ এপ্রিল থেকে ২৩ এপ্রিল পর্যান্ত ১০ দিনে কুমিল্লায় করোনায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৭৩৪ জন। সুস্থ্য হয়েছেন ২৬০ জন। আর মৃত্য হয়েছে ৩৩ জনের। এর আগের ১০ দিন অথ্যাৎ ৪ এপ্রিল থেকে ১৩ এপ্রিল মোট করোনায় প্রানহানি হয়েছে ২৮ জনের। করোনায় আত্রান্ত হয়েছিলেন ৭৩৪জন। সুস্থ হয়েছেন ২২জন।

এদিকে  কুমিল্লা জেলায়  নতুন করে আরও ৫৪ জন করোনায় সনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলা জুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১ হাজার ৬২৮জন।

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন  এলাকায় ১ জন ও ব্রাক্ষণপাড়া ১জন করোনায় প্রান হারিয়েছেন ফলে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৩৫৯ জনে দঁাড়ালো।

এছাড়া ২৪ ঘন্টায় আক্রান্তদের মধ্যে জেলার কুমিল্লা সিটি কপোর্রেশন এলাকায় ২৪ জন, সদর দক্ষিণ  ১ জন, আর্দশ সদর উপজেলায় ২জন, লাকসাম উপজেলায় ৪ জন, বুড়িচং উপজেলায় ৩জন, ব্রাক্ষণপাড়া উপজেলায় ২জন, বরুড়া উপজেলায় ৪ জন,  লাঙ্গলকোট উপজেলায় ২ জন, মনোহরগঞ্জ উপজেলায় ৫ জন, চান্দিনা উপজেলায় ৫ জন, দেবিদ্বার উপজেলায় ১জন।

গেল ২৪ ঘন্টায় কুমিল্লা জেলার মধ্যে সিটি কর্পোরেশন এলাকায় ৩৫ জন সুস্থ হয়েছেন   ফলে এ পর্যন্ত মোট সুস্থ্য হয়েছে ৯ হাজার ৩২৭ জন করোনা রোগী।

২৩ এপ্রিল শুক্রবার বিকেলে কুমিল্লা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

এ পর্যন্ত জেলা থেকে নমুনা পাঠানো হয়েছে ৬৫ হাজার ৯৩৬ জনের এবং রিপোর্ট পাওয়া গেছে ৬৫ হাজার ১৪৫ জনের। এর মধ্যে ১১ হাজার ৬২৮ জনের করোনা সনাক্ত হয়েছে। বিদেশগামী যাত্রীদের নমুনা পরীক্ষায় ৩৯৪ জনের মধ্যে নতুন ৪ জন করোনায় সনাক্ত হয়েছেন।

করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে ২য় দাপে সারাদেশে এক সপ্তাহের লকাডাউন শেষে গত ১৪ এপ্রিল থেকে আবারও সর্বাত্মক লকডাউন ঘোষণা করা হয়। এটি বাড়িয়ে আগাম ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত এই সর্বাত্মক লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি করা হয়।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. মীর মোবারক হোসাইন জানান, কুমিল্লায় করোনা আক্রান্ত ১০ দিনে কিছুটা কমেছে, মৃত্যু কমেনি, সুস্থতা বেড়েছে। লকডাউনের পর আশা করি আক্রান্তের হার কমে আসবে এবং মৃত্যও হার কমাতে সবাইকে টিকা নিতে বলবো।

কুমিল্লা জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল হাসান জানান, করোনায় মৃত্যও সংখ্যা কিছুটা বেড়েছে। আর মৃত্য হওয়া বেশিরভাগ লোকই বয়ষ্ক। করোনার টিকা নিয়েছেন এমন কেউ এখানে মৃত্য হয়নি। তাই মৃত্যও হার কমাতে আমি সকলকে করোনার টিকা নিতে অনুরোধ করব এবং লকডাউন ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহব্বান জানাবো।

You might also like
error: Content is protected !!